NID Card দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন আছে চেক করুন

NID Card দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করুন
NID Card দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করুন

আপনার NID Card দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা আছে তা সহজেই জানতে পারবেন। USSD কোড ডায়াল করে অথবা SMS পাঠিয়েও সিমের নিবন্ধন তথ্য জানা যায়। আপনার নিজের নামে নিবন্ধিত যেকোনো সিম নাম্বার ব্যবহার করে আপনার NID দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা তা খুব সহজেই বের করতে পারবেন।

আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে যদি অন্য কারো সিম রেজিস্ট্রেশন করা থাকে তাহলে, সিম রেজিস্ট্রেশন তথ্য যাচাই করার মাধ্যমে জানতে পারবেন। আপনি চাইলে অপ্রয়োজনীয় সিমগুলো রেজিস্ট্রেশন বাতিল করতে পারবেন বা অন্য কারো নামে ট্রান্সফার করে নেওয়া যাবে ।

একজনের সিম কার্ড অন্যজনের নামে রেজিস্ট্রেশন করার কারণে পরবর্তী সময়ে সিম কার্ডের বিভিন্ন জটিলতা জন্য বিড়ম্বনায় পরতে হয়। তাই আপনার NID Card দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে তা জানা জরুরী।

২০১৫ সালের ১৬ই ডিসেম্বর বাংলাদেশে সর্বপ্রথম বায়োমেট্রিক্স পদ্ধতিতে সিম কার্ড (SIM Card) রেজিস্ট্রেশন চালু করা হয়। এর পূর্বে সিম কার্ড রেজিস্ট্রেশন করার জন্য কোন প্রকার আঙ্গুলের ছাপ কিংবা জাতীয় পরিচয়পত্রের প্রয়োজন হতো না। বর্তমানে একটি আইডি কার্ড দিয়ে সর্বোচ্চ ১৫ টি SIM (Subscriber Identity Module) রেজিস্ট্রেশন করা যাবে সেই ব্যবস্থা চূড়ান্ত করেছে বিটিআরসি।

এছাড়া ড্রাইভিং লাইসেন্স, পাসপোর্ট বা জন্মসনদ – এসব ডকুমেন্ট দিয়ে দুটির বেশি সিম নেওয়া যাবে না। এটা সাময়িক ব্যবস্থা। যখনই মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর এনআইডি হয়ে যাবে তখন এই নিয়ম বদলে যাবে। তিনি তখন ১৫টি সিমের কোটায় অন্তর্ভুক্ত হবেন। তথ্যসূত্রঃ BTRC

যে সকল তথ্য জানা যাবে সিম নিবন্ধন চেক করার মাধ্যমে

  • নিবন্ধিত মোট সিমের সংখ্যা
  • কোন অপারেটরের কয়টি সিম আছে
  • রেজিস্ট্রেশন / নিবন্ধিত করা সকল সিমের নাম্বার (আংশিক)
  • অবশিষ্ট আর কতটা সিম কিনতে পারবেন (লিমিট)

বর্তমানে আমাদের দেশে ৫ টি সিম কোম্পানি রয়েছে। এর মধ্যে ১টি রাষ্ট্রায়ত্ত বাকিগুলো বেসরকারি রয়েছে ।  সেগুলো হলো- গ্রামীণফোন, বাংলালিংক, রবি, এয়ারটেল, টেলিটক ।  

আইডি কার্ড দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন হয়েছে জানুন

আইডি কার্ড বা NID Card দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা তা জানার জন্য মোবাইলের ডায়াল অপশন থেকে *16001# ডায়াল করুন। তারপর আবার একটি ইনপুট ডায়লগ আসবে, সেখানে আপনার আইডি কার্ডের শেষ 4 ডিজিট টাইপ করে Send বাটনে ক্লিক করুন। ফিরতি SMS এর মাধ্যমে NID দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা তার তালিকা জানিয়ে দেয়া হবে।

  • মোবাইলের ডায়াল অপশনে যান
  • সিম রেজিস্ট্রেশন যাচাই কোড *১৬০০১# ডায়াল করুন
  • জাতীয় পরিচয় পত্রের বা NID Card এর শেষ চার সংখ্যার লিখুন
  • এবং সেন্ড বাটনে ক্লিক করুন
NID Card দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করুন
NID Card দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করুন

উপরের দেখানো পদ্ধতি অনুসরণ করার মাধ্যমে চেক করতে পারবেন আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র ব্যবহার করে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে বা আর কতটা সিম কিনতে পারবেন তার লিমিট সংখ্যা ।

কার নামে সিম নিবন্ধন চেক করুন

সিম কার নামে নিবন্ধন করা সেটি চেক করার জন্য *১৬০০১# এই কোড ব্যবহার করতে হয় । SIM Registration Check Dial Code: *16001#

NID Card যাচাই করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন

এখানে সিমের নাম্বার আংশিক দেখা যাবে বলতে বুঝানো হয়েছে আপনার ভোটার আইডি দিয়ে যতগুলো সিম রয়েছে তার একটি তালিকা দেখতে পারবেন ঠিকই কিন্তু মোবাইল নাম্বারের মাঝের কিছু অংশ হাইড করা থাকবে। আপনি নাম্বার গুলোর প্রথম এবং শেষের ৩ ডিজিট দেখতে পাবেন।

আপনার মোবাইল নাম্বারটি যদি +৮৮০১৩৪৮২২৭১৮৪ হয় তাহলে সেটি +৮৮০১৩*****১৮৪ এভাবে দেখাবে। নিরাপত্তা বজায় রাখার জন্য এরকমটি করা হয়। যদি নাম্বারগুলো আপনি নিবন্ধন করে থাকেন তাহলে অবশ্যই নাম্বারের প্রথম এবং শেষের সংখ্যা দেখে তা বুঝতে পারার কথা।

অপরিচিত কোন সিম মনে হলে বা আপনি ব্যবহার না করে থাকলে সেটি বাতিল করতে পারবেন। অকার্যকর অথবা নষ্ট হয়ে যাওয়া সিম কার্ড গুলো আপনার নিবন্ধন তালিকা থেকে বাতিল করতে পারবেন আপনার ইচ্ছা অনুযায়ী।

সিম রেজিস্ট্রেশন চেক অনলাইন বা Check SIM Registration Online

আপনার আইডি কার্ড দিয়ে কয়টি সিম নিবন্ধন করা আছে তা জানার জন্য সিম কোম্পানিতে যোগাযোগ করতে হবে না, যেতে হয় না কোন কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে। এখন সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করুন অনলাইনে ঘরে বসে।

বর্তমানে বাংলাদেশে 5 টি সিম কোম্পানি রয়েছে। 1টি সরকারি বাকিগুলো বেসরকারি রয়েছে ।  সেগুলো হলো- Teletalk, Grameenphone (GP), Banglalink (BL), Robi, Airtel.

সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করার জন্য অনলাইন বা ইন্টারনেটের প্রয়োজন নেই। বাটন ফোন কিংবা স্মার্ট যে কোন মোবাইল থেকে ডায়াল কোড ব্যবহার করেই জেনে নিন আপনার নামে নিবন্ধিত সিমের তালিকা।

ডায়াল কোড অপারেটর

*16001# বাংলালিংক
*16001#রবি
*16001#এয়ারটেল
*16001#গ্রামীণফোন

মেসেজ অপারেটর

নাম্বারমেসেজঅপারেটর
1600infoটেলিটক
4949infoগ্রামীণফোন

গ্রামীণফোন সিম হলে আপনি ডায়াল বা মেসেজ ২ ভাবেই চেক করতে পারবেন। যেটা আপনার কাছে সহজ মনে হয়। গ্রামীণফোন এবং টেলিটক সিমের ক্ষেত্রে আপনি মেসেজের মাধ্যমে সিম কার্ড নিবন্ধন চেক করতে পারবেন।

গ্রামীণফোনের সিমের মাধ্যমে নিবন্ধন যাচাই করার জন্য মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করুন info এবং পাঠিয়ে দিন 4949 নাম্বারে।

টেলিটক সিমের মাধ্যমে নিবন্ধন যাচাই করার ক্ষেত্রে মেসেজ অপশনে গিয়ে info লিখে ১৬০০ নম্বরে মেসেজ পাঠিয়ে দিন । ফিরতি এসএমএসে আপনার আইডি দিয়ে নিবন্ধিত সিমের তথ্য জানানো হবে।

SIM Registration Check Dial Code: *16001#
SIM Registration Check Dial Code: *16001#

সিম রেজিস্ট্রেশন বা নিবন্ধন বাতিল করার নিয়ম

অপ্রয়োজনীয় অথবা অকেজো হয়ে যাওয়া সিম কার্ডের রেজিস্ট্রেশন বাতিল করার প্রয়োজন হয় অনেক সময় । তাছাড়া আপনারা আইডি কার্ড দিয়ে যদি অন্য কেউ সিম রেজিস্ট্রেশন করে থাকে এবং সেই সিম কার্ড ব্যবহার করে কোন প্রকার অনৈতিক ও অপরাধমূলক কাজ করে তাহলে তার দায়ভার আপনার উপর আসবে।

আপনার এনআইডি কার্ড নিয়ে আপনার পার্শ্ববর্তী সিম কাস্টমার কেয়ারে চলে যাবেন । আপনার সিম বন্ধ করার ব্যাপারটি তাদেরকে বলবেন, তারা আপনার আইডি কার্ডের প্রুফ নিয়ে সিমটি 48 ঘণ্টার মধ্যে বন্ধ করে দেবে।

1. হেল্পলাইনে কল করে

আপনার nid কার্ড তোলা একটা সিম আপনার কাছে আছে, আপনি চাইছেন সেই সিম টা বন্ধ করতে সেক্ষেত্রে আপনি ওই সিম থেকে Customer care helpline number এ কল করবেন।

তারা আপনাকে কিছু কথা জিজ্ঞাসা করবে আপনার আইডি প্রুফ চাইবে, আপনি এনআইডি কার্ডের নাম্বার বা যেটি আপনার কাছে জানতে চাইবে সেটি বলবেন তারপর আপনার Sim Registration টি বাতিল করতে পারবেন।

2. কাস্টমার কেয়ারে গিয়ে

যদি আপনার সিমটি হারিয়ে যায় বা অন্য কোন ব্যক্তি আপনার সিম ব্যবহার করে সেক্ষেত্রে আপনি আপনার যাবতীয় আইডি প্রুফ নিয়ে আপনার নিকটবর্তী কাস্টমার কেয়ারে চলে যাবেন।

তারপর সিম ডিএক্টিভ করার কথাগুলো তাদেরকে বলবেন এবং তারা আপনার কাছ থেকে আইডি প্রুফ নিয়ে আপনার সিম রেজিস্ট্রেশন বাতিল করে দেবে।

নিরাপত্তার স্বার্থে এবং সিম কার্ড জনিত নানান জটিলতা এড়াতে অপ্রয়োজনীয় সিমের রেজিস্ট্রেশন বাতিল করা উচিত। তাছাড়া একটি জাতীয় পরিচয় পত্র ব্যবহার করে 15 টি সিম নিবন্ধন করা যায় ।

FAQ

পাসপোর্ট দিয়ে কয়টি সিম ক্রয় করা যায়?

ড্রাইভিং লাইসেন্স, পাসপোর্ট বা জন্মসনদ – এসব ডকুমেন্ট দিয়ে 2 টির বেশি সিম নেওয়া যাবে না। এটা সাময়িক ব্যবস্থা।

NID Card দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা যায়?

BTRC সর্বশেষ নির্দেশনা অনুসারে একটি এনআইডি / NID দিয়ে সর্বোচ্চ ১৫ টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। কারো এই কোটা পূর্ণ হয়ে গেলে অপ্রয়োজনীয় / অকেজো সিমের নিবন্ধন বাতিল করে সেটির স্থলে নতুন সিম নিবন্ধন করা যাবে।

আমার NID তে কয়টি সিম নিবন্ধন হয়েছে?

আপনার আইডিতে কয়টি সিম নিবন্ধন হয়েছে সেটি জানার জন্য আপনার আইডিতে নিবন্ধিত যে কোন সিম থেকে ডায়াল করুন *১৬০০১# এবং আইডি কার্ডের শেষ চারটি সংখ্যা দিয়ে জেনে নিন আপনার নিবন্ধিত মোট সিমের সংখ্যা ও বিস্তারিত তথ্য।

সিম কোন আইডি দিয়ে নিবন্ধন করা বের করা যাবে?

NID কার্ডের নাম্বার জানা থাকলে ওই জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে কয়টি সিম এবং কোন কোন সিম রেজিস্ট্রেশন করা তা জানা যায়। দুঃখের বিষয় এখন পর্যন্ত শুধু সিম নাম্বার দিয়ে কোন আইডি দিয়ে নিবন্ধন করা সেটি বের করার সুযোগ নেই।

3 responses to “NID Card দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন আছে চেক করুন”

  1. MD Habib Avatar
    MD Habib

    Good Info, Thanks

  2. আশিক Avatar
    আশিক

    আমার সিম টা কোন কাট দিয়ে

    1. GovtBD Avatar

      চেক করে নিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Similar Posts

3 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *