NID Card বা ভোটার আইডি কার্ড

NID Card কি ও এর ব্যবহার ?

  • নাগরিকের পরিচয়পত্র;
  • একাধিক কাজে ব্যবহার্য;
  • বয়স ১৮ বছর বা তার বেশি হতে হবে;
  • সুযোগ সুবিধাগুলি সুরক্ষিত করতে সহায়তা করে;

জাতীয় পরিচয় পত্র (NID কার্ড) হল এমন একটি ব্যক্তিগত ডকুমেন্ট যা ব্যক্তির নাগরিকত্বের প্রমাণ বহন করে। এটি একটি ছোট, প্লাস্টিকের কার্ড যাতে ব্যক্তির ছবি, নাম, জন্মতারিখ, ঠিকানা এবং অন্যান্য ব্যক্তিগত তথ্য রয়েছে। এনআইডি কার্ডটি services nidw gov bd বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন (EC) দ্বারা জারি করা হয়।

NID Card এর অনেকগুলি ব্যবহার রয়েছে। এটি জমি জায়গা সংক্রান্ত, পাসপোর্ট এবং ভিসা পেতে, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলতে, মোবাইল ফোন সিম কেনার জন্য, ভোট দেওয়ার জন্য, এবং অন্যান্য সরকারি পরিষেবা পেতে প্রয়োজন।

সর্বশেষ আপডেট ও সহযোগিতার জন্য WhatsApp যোগ দিন

WhatsApp ChannelJoin WhatsApp
Facebook PageFollow on Facebook

এনআইডি কার্ডের জন্য আবেদন করতে, আবেদনকারীকে অবশ্যই ১৮ বছর বা তার বেশি বয়সী হতে হবে এবং বাংলাদেশের একজন নাগরিক হতে হবে। আবেদনকারীকে একটি আবেদনপত্র nid service bangladesh পূরণ করতে হবে, সরাসরি ছবি তুলতে হবে বা ছবি জমা দিতে হবে ।

NID কার্ডটি বাংলাদেশ সরকারের একটি গুরুত্বপূর্ণ পরিচয়পত্র। এটি বাংলাদেশী নাগরিকদের পরিচয় নিশ্চিত করতে এবং তাদের অধিকার ও সব ধরনের সুযোগ সুবিধা গুলি সুরক্ষিত করতে সহায়তা করে।

জাতীয় পরিচয়পত্র বা National identity card (NID Card) বিস্তারিত:

জাতীয় পরিচয়পত্র বা National identity card হচ্ছে বাংলাদেশী নাগরিকদের nid home জন্য একটি বাধ্যতামূলক পরিচয়পত্র। বাংলাদেশী নাগরিকদের জন্য এটি একটি বাধ্যতামূলক নথি। বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি সেবা গ্রহন সহ রাষ্ট্রের সব ধরনের সুযোগ সুবিধা পেতে হলে NID Card প্রয়োজন হয়।

একজন বাংলাদেশী ১৬ বছর বয়সে আইডি কার্ডের জন্য নিবন্ধন করতে পারে এবং ১৮ বছর পূর্ণ হওয়ার পর ভোটার তালিকায় নথিভুক্ত হয়। বর্তমানে ভোটার নিবন্ধন, আইডি কার্ড বিতরণ বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের bangladeshi national identity card অধিনে থাকলেও পরবর্তী সময়ে এই দায়িত্ব স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের হাতে থাকবে।

জাতীয় পরিচয় পত্র ও NID কার্ডের সূচনা লগ্ন:

সর্বপ্রথম ১৯৯০ সালের মাঝামাঝি সময়ের দিকে NID কার্ড বা জাতীয় পরিচয় পত্রের প্রচলন শুরু হয় । তবে ২০০৮ সালে থেকে বিতরণ হয় আঙ্গুলের ছাপ সম্বলিত বায়োমেট্রিক তথ্য সহ National identity card (NID) । আইডি কার্ডের নিবন্ধন এবং বিতরনের দায়িত্বে ছিলো NIDW বা জাতীয় পরিচয় উইং। বর্তমানে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের Services nidw gov bd ওয়েব পোরটালের মাধহমে জাতীয় পরিচয় পত্র সেবা প্রদান করা হয়। nid card online check

প্রথম দিকের সব এনআইডি কার্ড কাগজে ছাপানো লেমেনেটিং করা ছিলো। বর্তমান সময়েও যে সব এলাকায় Smart NID Card বিতরণ করা হয়নি তাদের লেমেনেটিং আইডি কার্ড ব্যবহার করতে হচ্ছে। তবে খুব শিগ্রই ধাপে ধাপে সবাইকে স্মার্ট আইডি কার্ডে আওতায় নিয়ে আসা হবে।

NID Card বা ভোটার আইডি কার্ড
NID Card বা ভোটার আইডি কার্ড

Smart NID Card BD

জাতীয় পরিচয় পত্র ও আইডি কার্ডের স্মার্ট এবং আপডেট সংস্করণ হচ্ছে Smart nid card. সাধারণ জাতীয় পরিচয় পত্রের সীমাবদ্ধতা থেকে বের হয়ে বেশি তথ্য সমৃদ্ধ, ডিজিটাল ও স্মার্ট পরিচয় বহন কারি নথি হিসেবে স্মার্ট আইডি কার্ড চালু করা হয়।

স্মার্ট জাতীয় পরিচয় পত্র সিমের মতো মাইক্রো চিপে ব্যক্তি সম্পর্কে ৩২টি বায়োমেট্রিক তথ্য এবং সনাক্ততকারি তথ্য সংরক্ষন করে। ব্যক্তির ২ হাতের ১০ আঙ্গুলের ছাপ, চোখের রেটিনার তথ্য (প্যাটার্ন), ছবি ও ডিজিটাল স্বাক্ষর এই Smart NID Card এ সংরক্ষিত থাকে।

স্মার্ট কার্ড ব্যাবহারে ফলে নাগরিক সেবা অনেক সহজ nid online copy এবং দ্রুত হয়েছে। চিপ থাকের কারনে ম্যানুয়ালি চেকিং এর পরিবর্তে মেশিনের মাধ্যমে আইডি কার্ডের যাচাই করা যায়। স্মার্ট কার্ডে Micro Chip থাকার ফলে প্রযুক্তি ব্যাবহার করে নিমিষই সকল তথ্য বের করা যায়।

বর্তমানে ভোটার নিবন্ধন করার প্রক্রিয়া অনলাইন করা হয়েছে। ১৮ বছর পূর্ণ হলে নিজে নিজে অনলাইনে নতুন ভোটার হওয়ার আবেদন করে আইডি কার্ডের আবেদন করতে পারবেন। আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র অনলাইনে চলে আসলে অনলাইন থেকে ফ্রিতে সহজেই NID Card Download করতে পারবেন।

NID Card বা ভোটার আইডি কার্ড
NID Card বা ভোটার আইডি কার্ড

NID Card এর প্রয়োজনীয়তা

একটি রাষ্ট্রের নাগরিক সুবিধা ও সেবা গ্রহনের জন্য নাগরিকত্বের voter id প্রমান প্রয়োজন হয়। সরকারি কিংবা বেসরকারি সেবা পেতে হলে তাকে অবশ্যই আইডি কার্ডধারী হতে হবে। ব্যঙ্কিং থেকে শুরু করে জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই জাতীয় পরিচয় পত্রের প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। আমাদের প্রতিদিনের কাজে এনআইডি কার্ড বা বাংলাদেশী জাতীয় পরিচয় পত্র ব্যবহার করা হয়। তাই আমরা একটি ছোট তালিকা তৈরি করেছি যেখানে উল্লেখ করা হয়েছে কোন কোন ক্ষেত্রে NID কার্ড প্রয়োজন হয়।

– ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য

– পাসপোর্ট আবেদন করার জন্য

– সিম (SIM) কার্ড রেজিস্ট্রেশনের জন্য

– মোবাইল ব্যাংকিং চালু করার জন্য

– চাকরির আবেদনের জন্য

– ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রাপ্তির জন্য

– ট্রেড লাইসেন্স প্রাপ্তির জন্য

– ভোট দেওয়ার জন্য

– জমি ক্রয় বা বিক্রয়ের জন্য

সরকারি ভাতা প্রাপ্তির জন্য উপরে উল্লিখিত ক্ষেত্রগুলি ছাড়াও অনেক কাজেই NID কার্ড প্রয়োজন হয়। নাগরিক সনদ বা চারিত্রিক সনদ প্রাপ্তির জন্যও জাতীয় পরিচয় পত্র থাকতে হয়। সংক্ষেপে বলতে গেলে, একজন নাগরিক দেশে বাস করতে চাইলে প্রায়ই সকল ক্ষেত্রেই ভোটার আইডি প্রয়োজন হয়। যদি আপনার বয়স ভোটার নিবন্ধনের যোগ্য হয়, তবে national id card download অনলাইনে জাতীয় পরিচয় পত্রের জন্য নিবন্ধন করতে পারেন।

ক্যাটাগরিজাতীয় পরিচয় পত্র
নতুন ভোটার হতে চানNID Application
জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোডNID Card Download
NID কার্ড চেকNID Card Check
জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধনNID Card Correction
হোমপেইজGovt BD